ফোঁটে যখন বিজয়ের ফুল,  আসমা খান:When Victory Flower Blossoms , Asma Khan

44

ফোঁটে যখন বিজয়ের ফুল,  আসমা খান:When Victory Flower Blossoms , Asma Khan

পলাশীর  প্রান্তর, ১৭৫৭ সাল…

ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানীর সেই কৌশলী বিজয়ের কাল

পথপাশে দাঁড়িয়ে অবাক অজ্ঞ কিষান।

কৌতুহলি দৃষ্টি, সরল চেহারা

‘রাজা যায়… … রাজা আসে’ …  … কারা

যে দেয় সীমানা পাহারা,

ছন্নছাড়া  কিষান কি জানে

মসনদের মানে, কে বসে সিংহ আসনে?

 

ঐতিহাসিক সেই পলাশীর আম বাগান

কত যোদ্ধা লড়েছিল, গর্জেছিল কয়টা কামান

খাল কেটে সেই  কুমীর ডাকার খেলায়

যোদ্ধার জয় পরাজয় বেলায়

তখনো ছিল, এখনো আছে  ঘৃন্য মীর জাফর

বিশ্বাস ঘাতক।, কলঙ্কিত ষরযন্ত্রের পর

প্যান্ডোরার বাক্স খোলা, লোভের সহস্র ফনা

ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে যত মানবিক আবর্জনা

তখনো এবং এখনো

অতর্কিতে পিঠে ছুরি মেরে ‘অমায়িক বজ্জাত’,

সামনে এসে বিব্রত হেসে শুধায়,

‘বড় বেশি লেগেছে সোনা?’, ’পরাজয় যন্ত্রনা?’

 

সেই যুদ্ধের পর

সততা আর বিরত্ব গাঁথা লেখা বিজয়ী সাহসে

শঠতা আর ভীরুতার গ্লানি পরাজিত ইতিহাসে

সত্য, মিথ্যার এমন শৈল্পিক কোলাজে

উদাসিন সরলতাই  অজ্ঞতার সাজে

নত্মুখে বী্রত্ব আর স্বাধীনতা গিয়েছিল দূর থেকে আরো দূরে

ক্লান্ত করুন বিষন্ন এক সূরে।

ও কিষানের নাতী পুতি ডাকো আজ তঁদের ফিরে ডাকো

অজ্ঞতাকে শিক্ষা দিয়ে  প্রাজ্ঞ বর্মে ঢাকো

বিশ্বাস এখনো স্বপ্ন জয়ের সম্ভাবনার স্মৃতি জ্বলা  সাঁকো।

 

 

ইতিহাস তাহলে

একেবেঁকে চলে, আর সেই বাঁক বদলে

স্রোতের উজানে গিয়ে  ন্ম্র নিপুন কৌশলে

নেতৃত্ব, ভোট, যুদ্ধ, বিশ্বাস আর অসীম ত্যাগের ফলে

এক একটি দেশ এখনো স্বাধীনতার গল্পগুলো  বলে!!!

 

ফোঁটে যখন বিজয়ের ফুল

জনপদের গল্পগুলি গরবের, প্রকাশে ব্যাকুল

মসনদ নয়, সিংহ আসন নয়, নয় পদানত যন্ত্রণা

ঠিকানায় রয় নিজস্ব পতাকার গৌরব, নানাবিধ  সান্তনা

স্বাধীনতা মানে আত্বপরিচয়, তার  বিকাশের দায়

পিছে হটা নয়, সামনে চলা, জগৎ জলসায়

অনন্য কত সম্ভাবনা চমকায়!!

Facebook Comments